So your best friend moved away and you’re having trouble dealing with it. How do you keep a long distance friendship alive? Read below to get some insights.

বেস্টি দেশের বাইরে চলে যাচ্ছে? তার সাথে প্রতিদিনের আড্ডা, হাসি, গান, স্লিপ-ওভার, হাজারো কথা, মান অভিমান সব নিমিষেই শেষ হতে চলেছে? ‘লং ডিস্ট্যান্স’ এর ক্ষেত্রে আমাদের সবার মনেই এই ধরনের ভাবনা এসে ভিড় করে। দূরত্ব বাড়লে অবশ্যই কিছু পরিবর্তন হবে, মনেরও কিছুটা পরিবর্তন আসবে। তাই বলে আপনার বেস্টি ‘আর আপনার নেই’ সেটা ভেবে বসে থাকলে হবে না। বেস্টির সাথে আগের মতই সম্পর্ক বজায় রাখার জন্য কিছু উপায় অনুসরণ করুন।

covid-19 online

Realejo Alto dicke frau kennenlernen tanzt lustig পরিবর্তনসমূহ মেনে নিন
পথের দূরত্ব বাড়ার সাথে সাথে অনেক কিছুর পরিবর্তন হয়! নতুন জায়গায় যাওয়ার পর স্বভাবতই মানুষ নতুনদের সাথে পরিচিত হবে। লাইফ স্টাইল রূপান্তর হবে, হয়তো তার পছন্দ অপছন্দও পরিবর্তিত হবে। মূলত সার্বিকভাবে খুব বড় আকারের একটা পরিবর্তন আসবেই। তাই আগে থেকেই সেই সব বিষয় আলোচনা করে মেনে নিন। এতে উভয় পক্ষের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝি কম হবে।

gay matchmaking service in st. albert টাইম ম্যাচ করুন
লং ডিস্ট্যান্সে সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে টাইমিং! বেশির ভাগ সময়ই দেখা যায় কিছু ভুল বোঝাবুঝি ও মনমালিন্য সময়ের ব্যবধানের জন্যেই হয়ে থাকে। তাই সবচেয়ে আগে আপনার বেস্টির টাইম-জোনের সাথে নিজেরটা মিলিয়ে নিন। এবং পরস্পর বোঝাপড়ার মাধ্যমে একটা সময় নির্ধারণ করে সেই অনুযায়ী যোগাযোগ করুন।

Poio c date app schweiz kündigen উপহার বা কার্ড আদান প্রদান করুন
যেহেতু দূরত্ব অনেক এবং টাইম-টু-টাইম দেখা করা সম্ভব নয়। তাই আপনাকে একটু কষ্ট করতে হবে সেই বন্ধুত্ব ধরে রাখার জন্য। দূরে থেকেও আপনি কিভাবে তাকে কাছে নিয়ে আসবেন ভাবছেন? খুব সহজ, তাকে সারপ্রাইজ দিন বিভিন্ন গিফট এবং যত্ন ও ভালবাসায় পরিপূর্ণ একটা কার্ড বা হ্যান্ড নোট কুরিয়ার করার মাধ্যমে! এটা তার প্রতি আপনার ভালবাসা ও কেয়ার দুটোই প্রকাশ করবে।

unforcedly country club hills gay dating app টিপস তার বিশেষ দিনগুলো কখনো ভুলবেন না!

en iyi turk arkadaslik sitesi Igualada

gute partnersuche apps ফোন করে খোঁজখবর রাখুন
ফোনের মাধ্যমে তার সাথে আপনার অবিরত যোগাযোগ রাখুন। ফোনের পাশাপাশি বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া যেমন ফেসবুক, স্কাইপ, ইন্সটার মাধ্যমেও তাদের সাথে থাকুন।

টিপসঃ সপ্তাহের যে কোন একটা দিনে তার সাথে ফেস-টাইমিং করুন স্কাইপ বা অন্য কোন মাধ্যমে।

টাইম-টু-টাইম টেক্সট করুন
ফোন করা হয়তো সবসময় সম্ভব হয়ে ওঠে না। তাই ফোনে কথা বলার সময় না হলে অন্তত একটা টেক্সট দিয়ে তাদের সাথে যোগাযোগ বজায় রাখুন। একটা মেসেজই বলে দেবে, যে ব্যস্ততা ও আপনাদের মধ্যকার গ্যাপ থাকা সত্ত্বেও আপনি তার জন্য সময় বের করেছেন।

টিপস  যখন যেখানেই আপনার বেস্টির কথা মনে পড়বে সেই মুহূর্তেই তাকে টেক্সট করুন।

বেস্টিকে চিঠি লিখুন
প্রযুক্তি যতই উন্নত হোক না কেন ওল্ড-ফ্যাশনের চিঠি লেখার ভাব কখনোই বদলাবে না। ফেসবুকে প্রতিনিয়ত মেসেজ করা, ইমেইল বা স্কাইপ করা অবশ্যই সহজ ও দ্রুত যোগাযোগ মাধ্যম। তবে অনুভুতির বহিঃপ্রকাশ যা চিঠির মাধ্যমে হবে তা আর অন্য কোন মাধ্যমে সম্ভব নয়! এতে আপনাদের মধ্যে দূরত্ব অনেকটাই কমে আসবে।

পুরনো স্মৃতি চারণ করুন
আপনার বেস্টির সাথে নিঃসন্দেহে জড়িয়ে আছে অনেক অনেক স্মৃতি যা বলে শেষ করা যাবে না! এমন কোন স্মৃতি যা মনে করে ফিরে যাবেন সেই আগের দিনে, দুজনে একসাথে সেই স্মৃতিচারণ করুন। হয়তো কোন একটা গানের সাথে জড়িয়ে আছে আপনাদের অনেক স্মৃতি। এরকম একটা গান ডেডিকেট করুন বন্ধুদের।

বেস্টি দূরে চলে যাওয়া মানে আপনার মনের অর্ধেকটা যেন শুন্য হয়ে যাওয়া! দূর দেশে যাওয়া নিয়ে বেস্টির সাথে আপনার লং ডিস্ট্যান্সের অভিজ্ঞতা শেয়ার করুন আমাদের সাথে।
  • Read more about long distance friendship here.
  • Along with keeping a healthy long distance friendship, know more about the perks of having a best friend here.
[thb_gap height=”50″][thb_postcategory style=”style7″ title_style=”style3″ cat=”3″]